অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে : মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার ১৫টি সহজ উপায়

    অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করার উপায়
    পোস্টটি শেয়ার করুন !

    প্রযুক্তির অগ্রগতির সাথে এই যুগ এত উন্নত হয়ে উঠছে যে, এখন প্রত্যেকে একটি আইওএস বা অ্যান্ড্রয়েড  ব্যবহার করছে। আর আপনার এই স্মার্টফোন বা মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা সম্ভব, তাই আপনি এটিকে আপনার মূল বা আয়ের সহায়তার উপায় হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন। সবাই এখন অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে করার উপায় খুঁজছেন অনলাইনে ঘাটাঘাটি করে।

    কিভাবে মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম করা যায়?(Kivabe mobile diye online income kora jay?)

    আপনি কি অতিরিক্ত আয় করতে চান? আপনি আসলে আপনার স্মার্টফোন থেকে এটি করতে পারেন। হ্যাঁ, যে জিনিসটি আপনি আজকাল ছাড়া বাঁচতে পারবেন না তা আপনাকে অনলাইনে আয় এর উপায় খুঁজে পেতে সহায়তা করতে পারে। এটা কি দারুণ নয়?  এখন মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম করার অনেক উপায় রয়েছে। এর মধ্যে কিছু উপায় নিচে দেয়া হলঃ

    ১) ফ্রিল্যান্সিং করে মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় (Freelancing kore mobile diye online income)

    ফ্রিলান্সিং করে অনলাইনে ইনকাম

    স্বাধীনভাবে নিজের দক্ষতা ব্যবহার করে কোনো কোম্পানির অধীনে না থেকে কাজ করে অনলাইনে আয় করাকে বলে ফ্রিল্যান্সিং। মোবাইলের মাধ্যমে অনেক ফ্রিল্যান্সারগণ  অনেক টাকা ইনকাম করে থাকেন।

    ফ্রিল্যান্সিং আপনার মোবাইল দিয়ে অনলাইনে টাকা আয় করার একটি নিশ্চিত উপায়। আপনার একটি ভাল স্মার্টফোন এবং ভাল ইন্টারনেট সংযোগ প্রয়োজন। বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিংসাইটে মোবাইল দিয়ে করার অনেক কাজ রয়েছে। এই সব কাজ করে আপনি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন। যেমনঃ

    • ব্লগ কমেন্টিং
    • ফোরাম পোস্টিং
    • ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট
    • কনটেন্ট রাইটিং
    • ট্রান্সলেশন
    • কপিরাইটিং
    • প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন রাইটিং
    • ট্রান্সক্রিপশন,
    • প্রুফরিডিং ইত্যাদি

     এই ধরনের কাজের জন্য অর্থ প্রদানকারী সাইট হল:

    ২) পেইড সার্ভে থেকে  অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে (Paid survey theke mobile diye online income)

    আপনার স্মার্টফোনে অর্থ উপার্জনের অন্যতম সেরা পদ্ধতি হল অনলাইন জরিপ পূরণ করা। আপনি জরিপ সাইট পরিদর্শন করে অর্থ উপার্জন করার জন্য আপনার মতামত ব্যবহার করতে পারেন। এই সকল জরিপ পূরণ করলে সাইটগুলো আপনাকে অর্থ প্রদান করবে যা থেকে আপনি ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

     এই ধরনের সাইট হল:

    ৩)গেমস খেলার মাধ্যমে মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম (Games khele mobile diye online income)

    আপনি যদি গেমস খেলতে ভালোবাসেন তাহলে আপনি গেমস খেলেও অনলাইনে আয় করতে পারবেন। এমন কিছু অ্যাপ রয়েছে যারা গেমস খেললে এবং তাদের আপনার প্রতিক্রিয়া দেওয়ার জন্য সত্যিই ভাল অর্থ প্রদান করে।

    গেমস খেলার জন্য অর্থ প্রদানকারী অ্যাপের একটি উদাহরণ হল:

    Qriket: এই অ্যাপে, আপনি যা করতে চান তা হল টাকা জিততে চাকা ঘুরানো। আপনি রং নির্বাচন করুন এবং চাকা ঘুরান। যদিও, এটি একটি দুর্দান্ত অর্থ উপার্জনকারী অ্যাপ্লিকেশন নয়, আপনি নিশ্চিতভাবেই একটি খুব ভাল পরিমাণ পাবেন।

    কিছু অর্থ প্রদানকারী অ্যাপের নাম নিচে দেয়া হলঃ

    • Inbox Dollars
    • Tap Cash Rewards ইত্যাদি

    এই গুলো থেকে ইনকাম করতে হলে এক একটা গেমসের ভিন্ন ভিন্ন শর্ত ও কাজ থাকে, তা পূরণ করেই ইনকাম করতে হয়।

    ৪) ভার্চুয়াল এসিট্যান্ট হয়ে অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে (Virtual assistant hoye mobile diye online income)

    অনলাইনে এমন কিছু কোম্পানি বা ব্যক্তি আছে যারা ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট খুঁজছে।তাদের খুব ভালো বেতন দিতে ইচ্ছুক। এটি করার জন্য আপনার কোনও অফিসের প্রয়োজন নেই, আপনার বাড়িতে বসে মোবাইল দিয়ে সুবিধামত কাজ করতে পারেন।

    এই ধরনের অর্থ প্রদানকারী সাইট হলঃ

    ৫) অনলাইন টিউশনের মাধ্যমে অনলাইনে ইনকাম মোবাইল দিয়ে (Online tution kore mobile diye online income)

    একজন ছাত্রের ইনকামের অন্যতম জনপ্রিয় মাধ্যম হল টিউশন। আপনি অনলাইনে বাড়িতে বসে টিউটরিং ক্লাস নিয়ে ভালো আয় করতে পারেন। আপনি যে বিষয়ে পারদর্শী, সে বিষয়ে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইনে পড়িয়ে ইনকাম করতে পারেন। টিউশান এর পাশাপাশি বিভিন্ন কোর্স বানাতে পারেন, যা অনালাইনে বিক্রি করেও ইনকাম করতে পারেন। এছাড়া আপনি যদি কোনও বিষয়ে পারদর্শী হন, তাহলে সে বিষয়ে কনসালটেন্ট হয়েও ভালো আয় করতে পারবেন।

    এমন কিছু ওয়েবসাইট যারা বাংলাদেশে অনলাইন টিউশন নিয়ে কাজ করছেঃ

    • bdTutors.com
    • Deshtutor.com
    • Bdhometutotor.com

    ৬) ইউটিউবের মাধ্যমে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় (Youtubing kore mobile diye online income)

    ইউটিউব দিয়ে অনলাইন ইনকাম অন্যতম জনপ্রিয় একটি মাধ্যম। এখন স্মার্টফোন দিয়ে ভালো ভিডিও তৈরি থেকে শুরু করে এডিটিং ,আপলোড সবই করা যায়। তাই এখন মোবাইল দিয়ে ভিডিও বানিয়ে তা ইউটিউেব আপলোড করে গুগল অ্যাডসেন্স এর মাধ্যমে ভালো ইনকাম করতে পারবেন।

    গুগল অ্যাডসেন্স দ্বারা ইউটিউব মনিটাইজ করতে আপনার অন্তত

    • ১০০০ সাবস্ক্রাইবার
    • ৪০০০ ওয়াচটাইম ভিউ দরকার

    আপনি আপনার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার এবং ওয়াচটাইম বাড়াতে চাইলে Sub For Sub অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন।

    তাছাড়া আপনার যদি ভালো সাবস্ক্রাইবার থাকে তাহলে স্পন্সরড ভিডিও তৈরি করে অথবা অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক শেয়ার করেও ভালো আয় করতে পারবেন।

    ৭)  ব্লগিং করে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় (Blogging kore mobile online income)

    ব্লগিং করে মোবাইলে দিয়ে অনলাইনে আয়

    ব্লগিং করে ইনকাম বর্তমানে অন্যতম জনপ্রিয় একটি উপায়। আপনার যদি একটি ভালো মোবাইল ফোন থাকে, তাহলে আপনি মোবাইল দিয়ে ব্লগিং করেও ভালো ইনকাম করতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনাকে পরিশ্রম একটু বেশি করতে হবে।

    মোবাইল দিয়ে ব্লগিং করতে হলে প্রথমে আপনাকে একটা ব্লগ সাইট তৈরি করতে হবে। অনলাইনে অনেক ফ্রি ব্লগ বানানোর সাইট আছে যেমনঃ ব্লগার.কম। আপনি এই গুলো থেকেও ফ্রিতে সাইট বানাতে পারেন। তারপর নির্দিষ্ট টপিক সিলেক্ট করে নিজের দক্ষতা অনুযায়ী আর্টিকেল লিখে নিয়মিত পাবলিশ করতে হবে। এভাবে আপনার ৬-৭ মাসেই ইনকাম আসা শুরু করবে।

    ব্লগে গুগল অ্যাডসেন্স এপ্রোভ করে অ্যাড দেখিয়ে আয় করতে পারবেন। তাছাড়া ব্লগে স্পন্সর পোস্ট, অ্যাফিলিয়েট পোস্ট করেও আয় করতে পারবেন। আপনি চাইলে অন্য কারও ব্লগে লিখেও আয় করতে পারবেন।

    ব্লগিং এর মাধ্যমে মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আমাদের এই আর্টিকেলটি পড়ুন।

    ৮)ক্যাপচা টাইপিং করে মোবাইল দিয়ে টাকা ইনকাম (Captcha typing kore mobile diye online income)

    মোবাইল দিয়ে ফ্রি সময়ে ক্যাপচা টাইপিং করে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। অনলাইনে অনেক ক্যাপচা টাইপিং করার সাইট আছে, যেখানে ২-৩ ঘন্টা কাজ করে ৫০০০-৮০০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

    এই ধরনের কিছু সাইটগুল হলঃ

    ৯) ফেসবুক পেজ এর মাধ্যমে অনলাইনে ইনকাম মোবাইল দিয়ে (Facebook theke mobile diye online income)

    ফেসবুক থেকে মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয়

    বর্তমান সময়ের সামাজিক মাধ্যমগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ব্যাবহৃত মাধ্যম হল ফেসবুক। আমরা ঘন্টার পর  ঘন্টা সময় নষ্ট করি  ফেসবুকে , কিন্ত আপনি চাইলে মোবাইল দিয়ে এই ফেসবুক ব্যাবহার করে ভালো ইনকাম করতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে অবশ্যই একটা ফেসবুক পেজ বানাতে হবে, যেখানে ভালো মানের কনটেন্ট আপলোড করবেন। যা গ্রাহকদের কাছে গ্রহন যোগ্যতা পায়।

    ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায়?

    ফেসবুক থেকে আয় করার জন্য বেশ কয়েকটি মডেল রয়েছেঃ

    • Branded content
    • In stream ad
    • Subscription group
    • Fan subscription

    ফেসবুক পেজ থেকে আয় করতে হলে পেজটি অবশ্যই মনিটাইজ করতে হয়। ফেসবুক পেজ মনিটাইজ করার শর্তঃ

    • পেজে ১০ হাজার ফলোয়ার।
    • মিনিমাম ৫টি একটিভ ফেসবুক ভিডিও
    • গত ৬০ দিনের মধ্যে ৬০০,০০০ মিনিট ওয়াচ টাইম

    ১০) ফেসবুক ইকমার্স থেকে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় (Facebook Ecommerce theke mobile diye taka ay)

    বর্তমানে দিন দিন বাড়ছে ইকমার্স এর চাহিদা। এখন মানুষ অনলাইনে কেনা কাটা করতে বেশি পছন্দ করে। তাই আশেপাশে বাড়ছে ইকমার্স ব্যবসা। আপনিও চাইলে মোবাইল দিয়েফেসবুক ব্যবহার করে ইকমার্স ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

    আপনি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আপনার পছন্দনীয় প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারবেন। প্রোডাক্ট কিনার জন্য আপনার ইনভেস্ট করতে হবে। এছাড়া ফেসবুক শপ ক্যাটাগরির মাধ্যমে আপনার প্রোডাক্টের ডিটেলস দিয়েও বিক্রি করতে পারেন।

    ১১) ইন্সটাগ্রাম থেকে মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম (Instagram theke mobile diye online income)

    ফেসবুকের মত মোবাইল দিয়ে ইন্সটাগ্রাম ব্যবহার করেও আপনি ভালো ইনকাম করতে পারবেন। আপনার ইন্সটাগ্রাম পেজে যদি আপনি ভালো কনটেন্ট দেন এবং সেই কনটেন্ট মানুষ পছন্দ করে ও আপনাকে ফলো করবে। আপনার যদি ভালো ফলোয়ার থাকে, তাহলে আপনি স্পন্সর পাবেন। এবং সেই স্পন্সর ভিডিও,ছিবি বা লিঙ্ক পোস্ট করে আপনি আয় করতে পারবেন। তাছাড়া আপনি নিজের পণ্য বিক্রি করে, অ্যাফিলিয়েট  মার্কেটিং করেও ইন্সটাগ্রামে  ইনকাম করতে পারবেন।

    ১২) মাইক্রোওয়ার্ক সাইট থেকে অনলাইন ইনকাম মোবাইল দিয়ে (Microwork site theke mobile diye online income)

    অনলাইনে কিছু সাইট রয়েছে যেগুলো ছোটো ছোটো অনেক সহজ কাজ যেমনঃ পোস্ট শেয়ার, ভিডিও দেখা, কমেন্ট করা, অ্যাপ ইন্সটল ইত্যাদির জন্য অর্থ দিয়ে থাকে। এসব সাইটকে মাইক্রোওয়ার্ক সাইট বলে। এসব ছোটোখাটো কাজ মোবাইল দিয়ে করে অনলাইনে আয় করতে পারবেন।

    কিছু জনপ্রিয় মাইক্রোওয়ার্ক সাইট হলোঃ

    ১৩) পিটিসি সাইট  থেকে মোবাইল দিয়ে ইনকাম (PTC site theke mobile diye income)

    PTC মানে পে টু ক্লিক। অনলাইনে এমন কিছু ওয়েবসাইট আছে যারা আপনাকে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখানোর মাধ্যমে অর্থ প্রদান করবে। আপনি ঐ সব সাইটে অ্যাকাউন্ট খুলে বিজ্ঞাপনে ক্লিক করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। অনেকেই এই সব সাইটে কাজ করতে গিয়ে প্রতরানার শিকার হন। তাই কাজ করার আগে ভালো করে যাচাই করে এই সব সাইটে কাজ করতে হবে।

    কিছু জনপ্রিয় পিটিসি সাইটঃ

    ১৪) পুরাতন পণ্য বিক্রি করে আয় (Puraton ponno bikri kore taka ay)

    এমন অনেক পণ্য আছে যেগুলো পুরনো হয়ে গেছে অথবা আমরা ব্যবহার করি না। এই সব পণ্য বিক্রি করে আমরা সহজেই ইনকাম করতে পারি। অনলাইনে এমন অনেক সাইট আছে যেমন: বিক্রয়.কম, সে সব সাইটে আমরা পণ্যের ছবি আপলোড করে বিক্রি করতে পারি। এভাবে খুব সহজেই পুরাতন পণ্য বিক্রি করে মোবাইল দিয়ে অন্লাইন ইনকাম করতে পারেন।

    ১৫) বিভিন্ন অ্যাপস থেকে মোবাইল দিয়ে ইনকাম (Apps theke mobile diye income)

    অনলাইনে কিছু অ্যাপস পাওয়া যায় যেগুলো থেকে আপনি মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন। কিন্তু এই গুলো অ্যাপস থেকে সাধারণত বেশি টাকা ইনকাম করা যায় না, তবে হাত খরচের টাকা ইনকাম করতে পারবেন। নিচে কয়েকটি বিশ্বস্ত অ্যাপস এর নাম দেয়া হয়েছে, যে গুলো ব্যবহার করে আপনি মোবাইল দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

    এই ধরনের কিছু অ্যাপসঃ

    • গুগল অপিনিয়ন রিওয়ার্ড
    • মিশো
    • চেম্প ক্যাশ
    • পকেট মানি
    • পোল পে
    • লোকো ইত্যাদি

    এই গুলো থেকে আয় করতে হলে এক একটা অ্যাপের ভিন্ন ভিন্ন শর্ত ও কাজ থাকে, তা পূরণ করেই ইনকাম করতে হয়।

    এভাবে অনেক গুলো সহজ  উপায় দিয়ে আপনি আপনার মোবাইল দিয়ে অনলাইন ইনকাম করতে পারেন। অনলাইনে অন্যদের পোস্ট এবং মন্তব্য পড়ার চেয়ে উৎপাদনশীল এবং উপকারী কিছুর জন্য আপনার স্মার্টফোন ব্যবহার করুন।


    পোস্টটি শেয়ার করুন !

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    কপিরাইট © 2021 BDBasics || সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত