অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়মঃ কীভাবে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটবেন?

    অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম
    পোস্টটি শেয়ার করুন !

    সড়কপথের ক্রমবর্ধমান দুর্ঘটনা এবং যানজটের হাত থেকে বাঁচতে দূরপাল্লার মানুষ বরাবরই ট্রেন যাত্রায় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে থাকে। বিশেষ করে,কোনো উৎসবে বা ছুটিতে পরিবার,বন্ধুদের নিয়ে ট্রেনে ভ্রমণ যেন এক রোমাঞ্চকর স্মৃতি। কিন্তু কাঙ্ক্ষিত এই ভ্রমণে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট পেতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা যেন এক দুর্বিষহ ব্যাপার। আপনার এই দুর্ভোগ কমাতে বাংলাদেশ রেলওয়ে চালু করেছে ই-টিকিটিং সার্ভিস।বর্তমানে ঘরে বসেই অনলাইনে কেটে নিন কাঙ্ক্ষিত সেই ট্রেনের টিকিট।

    তবে বাংলাদেশ রেলওয়ে ই-টিকিটং সিস্টেমে এসেছে কিছু পরিবর্তন।আগে ওয়েবসাইট বা রেলসেবা মোবাইল অ্যাপ টিকিট কাটা গেলেও বর্তমানে রেলের কম্পিউটারাইজড টিকিটিং এর কাজটি করছে “সহজ”নামক একটি কোম্পানি।আগামী ৫ বছরের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে Shohoz-Synesis-Vincen Joint Venture এর সাথে চুক্তি করেছে।

    তাই, সহজ থেকে এখন আপনি নিজেই ঘরে বসে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কিনুন। অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম বা কীভাবে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটবেন সে প্রক্রিয়াটিই বিস্তারিত আলোচনা করছি।

    ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটবেন যেভাবেঃ

    ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে কম্পিউটারের পাশাপাশি মোবাইল ব্রাউজারও ব্যবহার করতে পারেন। ওয়েবসাইট থেকে ট্রেনের টিকিট কাটার প্রক্রিয়াটি ধাপে ধাপে বর্ণনা করা হলোঃ

    ১। ই-টিকিট ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন

    শুরুতে আপনার কম্পিউটার অথবা মোবাইল ব্রাউজার থেকে রেলওয়ে বাংলাদেশের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন (https://eticket.railway.gov.bd/en)

    ২। অ্যাকাউন্ট খুলুন

    ওয়েবসাইটে প্রবেশের পর অ্যাকাউন্ট খুলতে Register বাটনে ক্লিক করুন।

     ট্রেনের টিকিট অ্যাকাউন্ট

    এরপর Registration এর যে পেইজটি আসবে তাতে আপনার নাম,ই-মেইল,মোবাইল নাম্বার যাবতীয় তথ্য ও পাসওয়ার্ড দিন।

    অনলাইনে  সাইন আপ

    সকল তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করে sign up এ ক্লিক করুন।সাথে সাথে আপনার প্রদত্ত মোবাইল নাম্বারে ৬ ডিজিটের একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে।

    ভেরিফিকেশন কোডটি সাবমিট করে verify এ ক্লিক করুন। আপনার রেজিস্ট্রেশন সফলভাবে সম্পন্ন হয়ে যাবে।

    ৩। অ্যাকাউন্ট লগ ইন করুন

    রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন হবার পর ওয়েবসাইটে ফিরে আসুন এবং উপরের ডানদিকে Login এ ক্লিক করুন।আপনার ই-মেইল বা মোবাইল নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করুন।

    টিকিট লগ ইন

    ৪। ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

    ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটতে উপরের ধাপ গুলো সম্পন্ন করার পর Home বাটনে চাপুন।

    ৪.১ যাত্রা সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য দিন

    হোমপেজে টিকিট কাটার ইন্টারপেসটি দেখতে পাবেন। সেখান থেকে আপনি From এ আপনার যাত্রা শুরুর স্থান এবং To তে আপনার গন্তব্য সিলেক্টকরুন।তারপর যাত্রার তারিখ (Date) ,শ্রেণি (Class) করুন। শ্রেণি নির্ধারণের ক্ষেত্রে-

    • SHOVAN (নন এসি শোভন ক্লাসের চেয়ার),
    • S_CHAIR (নন এসি সেকেন্ড ক্লাস শোভন চেয়ার),
    • SNIGDHA ( এসি চেয়ার),
    • AC_S (এসি সিট) এবং
    • F_SEAT (ফার্স্ট ক্লাস সিট)

     ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ট্রেনের যাত্রা সম্পর্কিত তথ্য

    ৪.২ ট্রেন নির্বাচন করুন

    যাত্রা সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য দেয়ার পর Find Ticket এ ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার যাত্রার তারিখে কোন কোন ট্রেন রয়েছে, ছাড়ার সময়, এভেইলেভ্ল সিট এবং ভাড়া তুলে ধরা হবে।আপনার কাঙ্ক্ষিত ট্রেনে যেতে View Seats বাটনে চাপুন।

    অনলাইনে ট্রেন নির্বাচন

    ৪.৩ আসন নির্বাচন করুন

    View Seats বাটনে চাপ দেয়ার সাথে সাথে আপনার উইন্ডোতে আসন নির্বাচনের একটি পেজ আসবে।সেখানে Available Seat গুলো দেখতে পারবেন।তাছাড়া আপনি আপনার পছন্দের বগিটিতে সিট আছে কিনা চেক করতে পারবেন।

    অনলাইনে ট্রেনের আসন নির্বাচন

    সিট সিলেক্ট করা হয়ে গেলে তা সবুজ রং দেখাবে।এবার CONTINUE PURCHASE বাটনে ক্লিক করুন।

    • মনে রাখবেন একটি অ্যাকাইন্ট থেকে সর্বোচ্চ ৪ টি টিকিট কাটতে পারবেন।

    ৪.৪ যাত্রীর তথ্য দিন

    এ ধাপে এসে যাত্রীদের তথ্য দিন। ৩-১২ বছরের শিশুদের জন্য Passenger Type “Child” সিলেক্ট করবেন।ফলে তার ভাড়া স্বয়ংক্রিয়ভাবে কম রাখা হবে।

    যাত্রীর তথ্য  ট্রেনের টিকিট কাটতে

    আরও পড়ুনঃ পাসপোর্ট করার নিয়ম: পাসপোর্ট করতে যা যা লাগে

    ৪.৫ পেমেন্ট সম্পন্ন করুন

    আপনি ডেবিট/ক্রেডিট কার্ড দিয়ে পেমেন্ট সম্পন্ন করতে পারেন।তাছাড়া আপনার যদি ব্যাংকে কোনো অ্যাকাউন্ট না থাকে তাহলে মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম বিকাশ দিয়েও পেমেন্ট সম্পন্ন করতে পারবেন।

    আপনার এভেইলেভেল গেটওয়ের মাধ্যমে আপনি পেমেন্ট সম্পন্ন করতে Confirm Purchase বাটন চাপুন।

    অনলাইনে  টিকিট কাটতে পেমেন্ট

    ৪.৬ টিকিট সংগ্রহ করুন

    পেমেন্ট মেথড সম্পন্ন হয়ে গেলে আপনার ই-মেইলে টিকিট চলে আসবে। সেখান থেকে টিকিট ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিতে পারেন অথবা নির্ধারিত দিনে কাউন্টার থেকে ছাপানো টিকিট সংগ্রহ করতে পারেন।তাছাড়াও ওয়েবসাইটে ৩০ মিনিটের মধ্যে টিকিট ইস্যু করা হবে। সেখান থেকেও ডাউনলোড করতে পারবেন।

    এছাড়া যেকোন সমস্যা জানাতে যোগাযোগ করুন support@eticket.railway.gov.bd ই-মেইল অ্যাড্রেসটিতে।

    সবশেষে ,আপনার নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ রেলওয়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার সার্ভিস চালু করেছে। কীভাবে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটবেন বা অনলাইনে ট্রেনের টিকিট  কাটার নিয়ম অনুসরণ করে এখন ঘরে বসেই খুব সহজে ওয়েবসাইট দিয়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কেটে নিন এবং নিরাপদে ভ্রমণ কুরুন।

    সাধারন জিজ্ঞাসাঃ

    👉 কতদিন আগে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা যায়?

    উত্তরঃআপনার যাত্রা শুরর ৫ দিন আগে আপনি অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারবেন।

    👉 অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার সময় কি?

    উত্তরঃ সকাল ৮:০০ থেকে রাত ১০:৩০ মিনিট পর্যন্ত অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারবেন।

    👉 অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কিভাবে সংগ্রহ করব?

    উত্তরঃআপনার ই-মেইলে টিকিট চলে আসবে।সেখান থেকে প্রিন্ট করে নিতে পারেন বা ওয়েবসাইটে লগ ইন করেও ড্যাশবোর্ড এ পারচেজ হিস্ট্রি থেকে টিকিট ডাউনলোড করতে পারবেন।

    👉 অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কীভাবে ফেরত দিব?

    উত্তরঃআপনি যদি নির্ধারিত দিনে যাত্রা করতে না পারেন সেক্ষেত্রে অনলাইনে কাটা ট্রেনের টিকিটটি আপনি যে স্টেশন থেকে যাত্রা করবেন সেই কাউন্টারে যোগাযোগ করে ফেরত দিতে পারবেন।

    নির্ধারিত সময়ের ৪৮ ঘণ্টা আগে টিকিট ফেরত দিলে ২৫% সার্ভিস চার্জ কেটে নেয়া হবে। ২৪ ঘণ্টার কম কিন্তু ১২ ঘণ্টার বেশি সময়ে ৫০% এবং ১২ ঘণ্টার কম কিন্তু ৬ ঘণ্টার বেশি সময়ে ৭৫% সার্ভিস চার্জ   কাটা হবে। এর কম সময়ে টিকিট ফেরত নেয়া হয় না।

    👉 ট্রেনের যাত্রা বাতিল হলে টাকা ফেরত পাব কি?

    উত্তরঃকোন কারণে যদি ট্রেন তার যাত্রা বাতিল করে তাহলে আপনি কাউন্টার থেকে টিকিটের সম্পূর্ণ টাকা ফেরত পাবেন।

    👉 অ্যাকাউন্ট ছাড়া কি অনলাইনে টিকিট কাটতে পারব?

    উত্তরঃ না। অনলাইনে টিকিট কাটতে অবশ্যই অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে।

    👉 একটি অ্যাকাউন্ট দিয়ে কয়টি টিকেট কাটা যায়?

    উত্তরঃ একটি অ্যাকাউন্ট দিয়ে আপনি সর্বোচ্চ ৪ টি টিকিট কাটতে পারবেন।

    👉 এক সপ্তাহে কতবার টিকেট কাটতে পারব?

    উত্তরঃ এক সপ্তাহে আপনি ২ বার টিকেট কাটতে পারবেন।

    👉 মোবাইল কোটা সিট নট এভেইলেভল মানে কি?

    উত্তরঃ অনলাইনে বরাদ্দকৃত সিট শেষ হয়ে গেছে।

    👉 ট্রেনের টিকেট প্রিন্ট আউট করতে হবে কি?

    উত্তরঃআপনার যাত্রায় ঝামেলা এড়াতে টিকিট প্রিন্ট করে যাত্রা শুরুর আগে কাউন্টার থেকে ছাপানো টিকিট সংগ্রহ করে নিন।

    👉 অনলাইনে প্রতি টিকেটে কত টাকা চার্জ কাটে?

    উত্তরঃঅনলাইনে প্রতি টিকেটে আপনাকে ২০ টাকা চার্জ দিতে হিবে।

    👉 ট্রেনের টিকিট কাটার সময় টাকা কেটে নিয়েছে কিন্তু টিকিট কাটা সম্পন্ন না হলে কি করব?

    উত্তরঃ ৮ কার্যদিবসের মধ্যে আপনার অ্যাকাউন্টে টাকা চলে আসবে।অন্যথায় ৩৩৩ তে যোগাযোগ করুন।


    পোস্টটি শেয়ার করুন !

    Leave a Reply

    Your email address will not be published.

    কপিরাইট © 2021 BDBasics || সমস্ত অধিকার সংরক্ষিত